Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

ফের আসছে নিষিদ্ধ কালটার

বেশি ফলন আর গুটি ধরে রাখতে আবারও নিষিদ্ধ ক্ষতিকর ভারতীয় কালটার আসা শুরু হয়েছে। চাঁপাই সদর, শিবগঞ্জ, ভোলাহাট মিলে গোমস্তপুর অঞ্চলে ২৪ হাজার হেক্টর জমিতে ২২ লাখ আম গাছ রয়েছে। এর মধ্যে শুধু শিবগঞ্জ এলাকায় ১৪ হাজার হেক্টর আম বাগান রয়েছে। তাই শিবগঞ্জ ও ভোলাহাট সীমান্ত জুড়ে ব্যাপক হারে প্রতি রাতে ক্ষতিকর ভারতীয় ‘কালটার’ বিষ ঢুকছে বাংলাদেশে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কৃষি সম্প্রসারণের এক কর্মকর্তা জানান, প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ৩০ লাখ টাকার কালটার ঢুকছে। সাম্প্রতিককালে শিয়ালমারী সীমান্ত থেকে বিজিবি এক ১ লিটারের কালটার ৩৫ বোতল, আধা লিটারের ৫৩ বোতাল, ১০০ গ্রামের দানাদার ২৪৯ বোতল এবং পাউডার ফর্মে পাঁচ শ’ গ্রামের ১১১ প্যাকেট জব্দ করে। যার বাজারমূল্য ২২ লাখ ৩২ হাজার টাকা। বিজিবি জানায়, বড় বড় চটের বস্তায় পুরে চোরাকারবারিরা নিয়ে আসছিল। চ্যালেঞ্জ করলে তারা বস্তা ফেলে ভারতে পালিয়ে যায়। আম চাষীদের ও ফলকর কেনা ব্যবসায়ীদের চাহিদার মুখে বহুজাতিক কোম্পানি (সিনজেনটা) ভারতে এই বিষ বা কালটার তৈরি করে। বাংলাদেশ এখনও এখানে কালটার তৈরির অনুমতি না দেয়ার কারণে চোরাকারবারিদের মাধ্যমে এই বিষ বা কালটার বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। কালটার ব্যবহারে আম গাছে গুটি ধরে রাখাসহ প্রচুর পরিমাণে উৎপাদিত আম মৌসুম পর্যন্ত রক্ষণাবেক্ষণ করে রাখার কারনে উৎসাহিত হয়ে পড়েছে আম বাগানে কালটার ব্যবহারে। এর ক্ষতিকার দিকও রয়েছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগ, উদ্যান গবেষণা কেন্দ্র, আঞ্চলিক উদ্যানতত্ত্ব বিভাগ ও রাজশাহীর ফল গবেষণাগারের মতে গত পাঁচ বছরে কালটার ব্যবহার করায় পাঁচ হাজার আম গাছ শুকিয়ে মারা গেছে। কালটার ব্যবহারে প্রথমে ডালপালা বা ডগা মরা শুরু হয়। আস্তে আস্তে তা বিভিন্ন কা-ে ছড়িয়ে পড়ে জড় বা শিকড় পর্যন্ত আক্রান্ত হয়ে গাছ মারা যায়। এসবের কারণে আম গবেষকসহ উদ্যানতত্ত্ববিদরা নড়েচড়ে বসে। তারা এই ক্ষতিকর ভারতীয় কালটার বিষ প্রয়োগ একেবারে নিষিদ্ধ করে প্রজ্ঞাপন জারীসহ ‘সিনজেন্টাকে’ কালটার উৎপাদনের অনুমতি না দিয়ে মৌসুম জুড়ে এর ক্ষতিকারক দিক নিয়ে আম চাষীদের মধ্যে সেমিনার, সিম্পোজিয়াম ও মাঠ দিবস পালন করে আসছে। তারপরেও মধ্যসত্ত্বভোগী হিসেবে পরিচিত যারা ২/৩ বছরের জন্য আম বাগানের ফলকর কিনছে তারা বেশি উৎপাদনের লোভে নিষিদ্ধ বিষ কালটার ব্যবহারের দিকে ঝুঁকে পড়ায় চোরাকারবাুরিরা উৎসাহিত হচ্ছে।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
বাজারে গত মাসের মাঝামাঝি সময় থেকেই আম আম রব। ক্রেতা যে আমেই হাত দিক না কেন দোকানি বলবে হিমসাগর নয়তো রাজশাহীর আম। ক্রেতা সতর্ক না বলে রঙে রূপে একই হওয়ায় দিব্যি গুটি আম চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে হিমসাগরের নামে। অনেকসময় খুচরা বিক্রেতা নিজেই জানে না তিনি কোন আম বিক্রি করছেন। ...
ফলের রাজা আম। আর আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ। দেশের সর্ববৃহত্তর অর্থনৈতিক ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যলয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা। এ জেলার প্রধান অর্থকরী ফসল আম। বর্তমানে জেলা সবখানে চলছে বাগান পরিচর্যা ও বেচা-কেনা। বর্তমানে জেলার ২৪ হাজার ৪৭০ হেক্টর আম বাগানে ৯০ ভাগ মুকুল এসেছে। ...
চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমবাগানগুলোতে আমের ‘মাছিপোকা’ দমনে কীটনাশক ব্যবহার না করে সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ ব্যবহার শুরু হয়েছে। পরিবেশবান্ধব এই ফাঁদকে কোথাও কোথাও ‘জাদুর ফাঁদ’ও বলা হয়ে থাকে। দু-তিন দিকে কাটা-ফাঁকা স্থান দিয়ে মাছিপোকা ঢুকতে পারে, এমন একটি প্লাস্টিকের কনটেইনার বা বোতলের ...
রাজধানীর মালিবাগের আবদুস সালাম। বয়স ৭২ বছর। তার চার তলার বাড়িতে রয়েছে একটি দুর্লভ ‘ছাদবাগান’। শখের বসে এ বাগান করেছেন। বছরের সব ঋতুতেই পাওয়া যায় নানা ধরনের ফল। এখনো পাকা আম ঝুলে আছে ওই ছাদবাগানে। শুধু আম নয়, ৫ কাঠা ওই বাগানজুড়ে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ফুল, ফলসহ অন্তত ১০০ ...
দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে এবার আম সাম্রাজ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা রফতানি পণ্যের তালিকায় উঠে আসার এক মাসের মধ্যেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের আম ব্যবসায়ীরা খুবই আগ্রহী হয়ে উঠেছে এখানকার আম তাদের দেশে নিয়ে যাবার ব্যাপারে। যদিও ইতোপূর্বে এ বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে দুই হাজার টন আম ...
আম গাছ কে দেশের জাতীয় গাছ হিসেবে ঘোষনা দাওয়া হয়েছে। আর এরই প্রতিবাদে কিছুদিন আগে এক সম্মেলন হয়ে গেলো যেখানে বলা হয়েছে :-"৮৫% মমিন মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ। ঈমান আকিদায় দুইন্নার কুন দেশেরথে পিছায় আছি?? আপনেরাই বলেন। অথচ জালিম সরকার ভারতের লগে ষড়যন্ত কইরা আমাগো ঈমানের লুঙ্গি ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২