Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

দেশের আমে ফরমালিন নেই, ছিলও না : ডিসিসিআই

দেশে উৎপাদিত আমে কোনো ফরমালিন নেই। অতীতেও ছিল না। ফরমালিন সম্পর্কে না জেনে ভুল তথ্যকে ভিত্তি করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এতদিন আম ধ্বংস করেছে। যার খেসারত দিতে হয়েছে ব্যবসায়ী ও নিরীহ চাষিদের বলে দাবি করেছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)। গতকাল বুধবার প্রতিষ্ঠানটির মিলনায়তনে ‘নিরাপদ আম বিপণনে নীতিনির্ধারণী পরিাবেশ’ শীর্ষক জাতীয় সংলাপ অনুষ্ঠানে এ দাবি করা হয়। অনুষ্ঠানে ইউএসএআইডি ও এগ্রিকালচার ভ্যালু চেইনের (এভিসি) যৌথ উদ্যোগে একটি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা হয়। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক

এম এ রহমান গবেষণাপত্রটি উপস্থাপন করেন। অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুন্সি শফিউল হক বলেন, জনগণ ফরমালিন আছে বলে দাবি করেছিল তাই আম ধ্বংস করা হয়েছিল। সরকারতো জনগণেরই। তাই জনগণের দাবি রাখতে হয়েছে। সচিবের এমন দায়িত্বহীন মন্তব্যে গণমাধ্যম কর্মীদের তোপের মুখে পড়লে কথা পাল্টে তিনি বলেন, আম পাকাতে ফরমালিন দেওয়া হয় না। তবে অনেকদিন রাখার জন্য ফরমালিন দেওয়া হলেও তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর না।

গবেষণায় দাবি করা হয়, বাংলাদেশে উৎপাদিত আমে কোনো প্রকার ফরমালিন মেশানো হয় না। আমের ভেতর প্রাকৃতিকভাবে ১.২২-৩.০৮ পিপিএম ফরমালিন থাকে। দেশের আইন প্রয়োগকারীরা সেটা না জেনে ফরমালিন আছে মনে করে হাজার হাজার টন আম নষ্ট করেছে। ফলে দেশের মানুষ এক প্রকার ভীতির মধ্যে ছিল। কৃষক থেকে ব্যবসায়ীরা আমের সাথে জড়িত সবাই লোকসান করেছে। রপ্তানিকারকরা বিদেশে আম রপ্তানি করতে পারেনি। অথচ বিষয়টি গুজব ছিল বলে প্রমাণিত হয়েছে। আর ফরমালিনের এই গুজব ছড়ানোর ব্যাপারে গণমাধ্যম কর্মীরাও ভূমিকা রেখেছিল। তারাও যাচাই না করেই গুজবে কান দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করেছে। প্রশাসনের নেওয়া ব্যবস্থা নাকি গবেষণার তথ্য কোনটি সঠিক জানতে চাইলে অতিরিক্ত সচিব গবেষণার তথ্য সঠিক বলে মত দেন। গবেষণার তথ্য সঠিক হলে হাজার কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট করার দায় কে নেবে এবং ব্যবসায়ী ও কৃষকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি প্রসঙ্গটি এড়িয়ে যান। বিপরীতে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট সময়ে আম খেলে কেমিক্যালযুক্ত আম খাওয়ার সম্ভাবনা কমবে। তাই মে মাসের আগে আম না খাওয়ার জন্য তিনি পরামর্শ দেন। পরবর্তীতে তিনি আমাদের অর্থনীতির সাথে একান্ত আলাপে বলেন, আমে ফরমালিন এখনো দেওয়া হয়। তবে তা মাত্রায় খুব সামান্য। এটা স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি করে না। সংলাপের সময় কেন তিনি একথা বলেননি জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেখানে আম পাকানোর কথা বলা হয়েছিল। আম পাকাতে তো ফরমালিন দেওয়া হয় না।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
মেহেরপুরে এবার আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। গত কয়েকদিনের কালবৈশাখী ঝড়ে কিছুটা ক্ষতিগ্রস্থ হলেও চলতি বছরও আম চাষিরা লাভের আশা করছেন। এদিকে গেল বছর স্বল্প পরিসরে সুস্বাদু হিমসাগর আম ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে রপ্তানি হলেও এ বছর ব্যাপক হারে রপ্তানি করার প্রস্তুতি নিয়েছে বাগান মালিকও আম ...
চাঁপাই নবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার এক সময়ের সন্ত্রাসের জনপদ নয়ালাভাঙাতে মাইক্রোবাস হতে ছোড়া বোমার আঘাতে দুই জন আহত হয়েছে। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের হরিনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- রানিহাটি ইউনিয়নের বহরম গ্রামের সোহরাব আলীর ছেলে মো. ...
বাজারে আম সহ মাছ, ফল, সবজিসহ বিভিন্ন খাদ্য সংরক্ষণে যখন হরহামেশাই ব্যবহার হচ্ছে মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান ফরমালিন, ঠিক তখনই এর বিকল্প আবিষ্কার করেছেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. মোবারক আহম্মদ খান। বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের প্রধান এই বৈজ্ঞানিক ...
বাড়ছে আমের চাষ। মানসম্পন্ন আম ফলাতে তাই দরকার আধুনিক উত্পাদন কৌশল। আম চাষিদের জানা দরকার কীভাবে জমি নির্বাচন, রোপণ দূরত্ব, গর্ত তৈরি ও সার প্রয়োগ, রোপণ প্রণালী, রোপণের সময়, জাত নির্বাচন, চারা নির্বাচন, চারা রোপণ ও চারার পরিচর্যা করতে হয়। মাটি ও আবহাওয়ার কারণে দেশের ...
গাছ ফল দেবে, ছায়া দেবে; আরও দেবে নির্মল বাতাস। আশ্রয় নেবে পাখপাখালি, কাঠ বেড়ালি, হরেক রকম গিরগিটি। গাছ থেকে উপকার পাবে মানুষ, পশুপাখি, কীটপতঙ্গ– সবাই। আর এতেই আমি খুশি। ঐতিহাসিক মুজিবনগর আম্রকাননে ছোট ছোট আমগাছের গোড়া পরিচর্যা করার সময় এ কথাগুলো বলেন বৃক্ষ প্রেমিক জহির ...
রীষ্মের এই দিনে অনেকেরই পছন্দ আম।এই আমের আছে আবার বিভিন্ন ধরণের নাম।কত রকমের যে আম আছে এই যেমনঃ ল্যাংড়া,ফজলি,গুটি আম,হিমসাগর,গোপালভোগ,মোহনভোগ,ক্ষীরশাপাত, কাঁচামিঠা কালীভোগ আরও কত কি! কিন্তু এবারে বাজারে এসেছে এক নতুন নামের আর তার নাম 'বঙ্গবন্ধু'। নতুন নামের এই ফলটি দেখা ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২